November 27, 2022

ব্লগিং কি? জেনে নিন ব্লগিং করে কিভাবে টাকা উপার্জন করতে পারবেন | সেরা ১০ টি উপায়: বর্তমান সময়ে গুগলের একটি ট্রেনিং কিওয়ার্ড “ব্লগিং করে আয় করার উপায় কি”। ফেসবুক, youtube, google, প্রত্যেকটা মার্কেটপ্লেসে এখন অনেকেই জানতে আগ্রহী-ব্লগিং করে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায়? এর ভবিষ্যৎ কি সেই সাথে ব্লগার থেকে টাকা আয় করার সহজ উপায় গুলো কি কি।

পাঠক বন্ধুরা, সবাইকে স্বাগতম জানাচ্ছি আমাদের আজকের ব্লগে। আজকে আমরা আমাদের আলোচনায় আপনাদেরকে জানাবো ব্লগিং কি? ব্লগিং করে কিভাবে টাকা উপার্জন করা যায়? আপনি যদি ব্লগিং কে পেশা হিসেবে বেছে নেন তাহলে মাস শেষে কেমন পরিমাণ টাকা ইনকাম করতে পারবেন। আসল কথা না বাড়িয়ে মূল আলোচনা পর্ব শুরু করি।

ব্লগিং কি?

সত্যি বলতে কয়েক বছর আগে ব্লগিং শব্দটির সাথে মানুষ খুব একটা পরিচিত ছিল না। এমনকি এটা শুধুমাত্র শখ হিসেবে নেওয়া হত। কিন্তু এখন ব্লগিংকে অনলাইন থেকে অর্থ উপার্জনের একটা কার্যকর উপায় হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। ব্লগিং হচ্ছে এক ধরনের অনলাইন ব্যক্তিগত দিনলিপি বা ব্যক্তি কেন্দ্রিক পত্রিকা। এই শব্দটি ওয়েব ব্লগের সংক্ষিপ্ত রূপ। যারা ব্লগে পোস্ট করেন তারা হচ্ছেন ব্লগার। ব্লগাররা মূলত প্রতিনিয়ত তাদের ওয়েবসাইটে কনটেন্ট যুক্ত করেন আর ব্যবহারকারীরা সেখানে তাদের মন্তব্য প্রকাশ করেন। 

ব্লগ থেকে টাকা ইনকাম

সত্যি বলতে অনলাইনে ওয়েবসাইট খুলে লেখালেখি করাটা ব্লগিং এটা এখন কারোরই অজানা নয়। এর মাধ্যমে যে টাকা ইনকাম করা যায় এটা এখন সবাই জানে। বেশ কিছু উপায় রয়েছে যেগুলোর মাধ্যমে অল্প সময়ের মধ্যে হিউজ পরিমাণ টাকা ইনকাম করা পসিবল। একজন ব্লগার মূলত জনপ্রিয় এই কয়েকটি পদ্ধতির মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে পারে ব্লগ সাইট থেকে। সেগুলো হচ্ছে:

  • গুগল এডসেন্স এর মাধ্যমে
  • ব্লগে বিজ্ঞাপন দিয়ে
  • ব্লগে প্রোডাক্ট ব্র্যান্ডিং করে
  • ব্লগ দিয়ে এফিলিয়েট মার্কেটিং করে
  • ব্যক্তিগত বা প্রতিষ্ঠান সংক্রান্ত ব্লগ লিখে
  • স্পন্সর শীপের মাধ্যমে
  • প্রিমিয়াম মেম্বারশিপ তৈরি করে

এছাড়াও ব্লগ থেকে ইনকাম করার আরো অনেক উপায় রয়েছে। তবে খুব তাড়াতাড়ি সফলতা অর্জন করা সম্ভব এই কয়েকটি উপায় অবলম্বন করে।

বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে ব্লগ থেকে আয় করার উপায়

ব্লগিং করে আয় এবং বিজ্ঞাপন নেটওয়ার্ক একে অপরের সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। কারণ বর্তমান সময়ে যে কোন ব্লগার আয় করতে অনেক বেশি নির্ভরশীল হয়ে পড়ে বিজ্ঞাপনের ওপর। বলা যায় সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য এবং সহজ উপায় হল বিজ্ঞাপন দেখিয়ে আয় করা। আর এই পদ্ধতিটি অনেক বেশি কার্যকরী। বিজ্ঞাপন নেটওয়ার্কের মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় নেটওয়ার্ক গুলো হলো:

  • গুগল এডসেন্স
  • Ezoic.com
  • Media.net

কিন্তু এই তিনটির মধ্যে আবার সব থেকে বেশি জনপ্রিয় গুগল এডসেন্স। যার মাধ্যমে খুব সহজেই ব্লগিং করে টাকা ইনকাম করা সম্ভব হচ্ছে।

প্রোডাক্ট বিক্রি করে ব্লগিং এর মাধ্যমে আয়

আপনি যদি একজন বিজনেসম্যান হয়ে থাকেন তাহলে আপনি ব্লগিং করে আপনার সেই প্রোডাক্টের রিভিউ সাইটে আপলোড করে তার সেল বাড়াতে পারেন। শুধু তাই নয় ডিজিটাল প্রোডাক্ট বিক্রির কাজও করতে পারবেন আপনি এই পদ্ধতির মাধ্যমে টাকা উপার্জন করতে পারবেন। আপনার জন্য সবচেয়ে জনপ্রিয় ডিজিটাল প্রোডাক্ট গুলো হবে,

  • ই-বুক
  • রেডি ওয়েবসাইট
  • সফটওয়্যার ও গেমস
  • ব্লগার ওয়ার্ডপ্রেস
  • ডোমেইন সহ প্রকৃতি

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর মাধ্যমে ব্লগিং করে আয়

আজকাল বেশিরভাগ মানুষ এফিলিয়েট মার্কেটিং এর সাথে পরিচিত। যারা অনলাইন মার্কেটপ্লেস সম্পর্কে জানেন তারা এফিলিয়েট মার্কেটিং কি সে সম্পর্কে অবশ্যই ধারণা রাখেন। অ্যাভিলেট মার্কেট মূলত একটি ব্লগিং ইনকাম সোর্স। আপনি যদি বাংলায় ব্লগিং করে ইনকাম করতে চান তাহলে ইন্টারন্যাশনাল প্রোগ্রামে যোগ না দিয়ে এফিলিয়েট মার্কেটিং শুরু করার জন্য বেছে নিতে পারেন বাংলাদেশি এফিলিয়েট প্রোগ্রাম। এখানে মূলত বিভিন্ন প্রোডাক্ট এর লিংক শেয়ারিং এর কাজ করা হয়।

স্পনসরশিপ এর মাধ্যমে ব্লগিং করে আয়

স্পনসরের সাথে আপনারা সবাই পরিচিত। আমরা মূলত facebook ভিডিও দেখার সময় যে অ্যাড বা স্পনসর দেখে থাকে সেটাই হচ্ছে স্পন্সারশীপ। আপনি চাইলে স্পনসরশীপের মাধ্যমে ব্লক থেকে ইনকাম করা সম্ভব। কিন্তু এর জন্য আপনার একটা পপুলার ওয়েবসাইট থাকতে হবে। মানে আপনাকে অনেক বেশি ভিজিটর আছে এমন একটি ওয়েবসাইটের মালিক হতে হবে। কারণ বিভিন্ন বড় বড় কোম্পানি স্পন্সরশিপ গ্রহণ করে, যা টাকা ইনকামের জন্য অনেক বেশি কার্যকরী পদ্ধতি।এবার চলুন জেনে নেই ব্লক থেকে যেভাবে অর্থ আয় করবেন। মানে ব্লগিংকে প্রফেশনালি করতে চাইলে আপনাকে কি কি করতে হবে?

ব্লগিং করে উপার্জন করার সেরা কোলাকৌশল

আপনি যদি প্রফেশনাল ব্লগার হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে চান এবং ব্লগিং করে নিজের ক্যারিয়ার গড়ে তুলতে চান, তাহলে অবশ্যই আপনাকে আমাদের সাজেস্ট করা এই পরিকল্পনাগুলো মাথায় রাখতে হবে। সত্যি বলতে অনলাইন ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে ব্লগিং করে নিজের একটা সুন্দর ভবিষ্যৎ গড়ে তোলা সম্ভব। এর জন্য প্রয়োজন:

  • সঠিক পরিকল্পনা
  • ইউনিক কনটেন্ট লেখার দক্ষতা
  • প্রফেশনাল ব্লগ তৈরি
  • ট্রাফিকের সম্ভাব্য উৎস খুঁজে বের করা
  • কিওয়ার্ড রাঙ্কিং এ নিয়ে আসা
  • ইমেইল তালিকা তৈরি করা

ব্লগিং করে ইনকাম করতে চাইলে কি ধরনের লেখা অনেক বেশি কার্যকরী?

আপনি যদি ওয়েবসাইটে কাজ করতে চান তাহলে আপনাকে মূলত এমন একটা বিষয় নির্বাচন করতে হবে যেটা আপনি ভালো জানেন। এমন অসংখ্য নিশের ওয়েবসাইট আপনি খুলতে পারেন। যথা: 

  • শিক্ষামূলক ওয়েবসাইট খুলে আয় করতে পারেন
  • টেকনোলজি ব্লগ লিখে আয় করতে পারেন
  • খেলাধুলা রিলেটেড ব্লগিংয়ের মাধ্যমে আয় করতে পারেন
  • রাজনৈতিক ব্লগ লিখে আয় করতে পারেন
  • এডিটোরিয়াল বা ফ্যাশন রিলেটেড ওয়েবসাইট এ কন্টেন্ট লিখে আয় করতে পারেন
  • ক্যারিয়ার বিষয়ক ওয়েবসাইট খুলতে পারেন। 

শুধু এই কয়েকটি নয় এমন অসংখ্য নিস রয়েছে ওয়েবসাইটের জন্য। এক কথায় আপনার যেটা ভালো লাগে এবং আপনি যে বিষয়ে অনেক বেশি অভিজ্ঞ সে বিষয়ে ব্লগিং করতে পারেন। 

ব্লগিং করে সফলতা পেতে চাইলে কি কি প্রয়োজন?

সত্যি বলতে অনলাইন প্লাটফর্মে টাকা ইনকাম করতে চাইলে অবশ্যই একটা মানুষকে পরিশ্রমী ও ধৈর্য ধারণ করার মন মানসিকতা থাকতে হবে। সেই সাথে লাগবে

  • একটা এন্ড্রয়েড ফোন
  • কম্পিউটার অথবা ল্যাপটপ
  • ভালো ইন্টারনেট সংযোগ বা মডেম

পাশাপাশি অবশ্যই ক্রিয়েটিভ মাইন্ডের হতে হবে। যে বিষয় নিয়ে ব্লগিং করবেন সেটা যেন ইউজার ফ্রেন্ডলি হয় সেদিকে নজর রাখতে হবে। এবং প্রতিনিয়ত গুগল কি আপডেট দিচ্ছে সে বিষয়ে বিস্তারিত ধারণা থাকতে হবে। আর অবশ্যই ব্লগিং করার ক্ষেত্রে একটা বিশেষ গুণের প্রয়োজন সেটা হচ্ছে এনালাইসিস করার প্রতি আগ্রহ। 

তো ভিউয়ার্স আজকের আর্টিকেল এ পর্যন্তই। যদি কোন প্রশ্ন থাকে আমাদের কমেন্ট করে জানান। সে সাথে নিয়মিত টিপস ও ট্রিকস রিলেটেড আর্টিকেল পেতে আমাদের ওয়েবসাইটের সাথে থাকুন। খুব তাড়াতাড়ি অনলাইনে ইনকাম সংক্রান্ত আরো একটি আর্টিকেল নিয়ে হাজির হব। আল্লাহ হাফেজ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Subscribe To Our Newsletter